New Muslims APP

কারো সাথে সাক্ষাত হলে করনীয়

la-reine

এক- আবু খাত্তাব ক্বাতাদা রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু’ হতে বর্ণিত, তিনি বলেন,
“আমি আনাস রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু’কে জিজ্ঞাসা করলাম, রাসূল সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম’ এর যুগে মুসাফাহা করার প্রচলন ছিল কিনা? উত্তরে তিনি বলেন, হ্যাঁ ছিল”। [বর্ণনায় বুখারি ]
দুই- আনাস রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু’ হতে বর্ণিত, তিনি বলেন,
“রাসূল সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম’ এর দরবারে ইয়ামনের অধিবাসীরা আসলে, তিনি সাহাবীদের বলেন, তোমাদের নিকট ইয়ামনিরা এসেছে। আর তারাই হল, সে সব লোক, যারা সর্ব প্রথম মুসাফাহার প্রচলন করেন”।বর্ণনায় আবু-দাউদ বিশুদ্ধ সনদে ।
তিন- বারা রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু’ হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূল সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম’ বলেন,
“যখন দুইজন মুসলিম একত্র হয় এবং একে অপরের সাথে মুসাফাহা করে। তারা উভয় বিচ্ছিন্ন হওয়ার পূর্বে আল্লাহ্ তা‘আলা তাদের ক্ষমা করে দেন”। বর্ণনায় আবু-দাউদ ।
চার- আনাস রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু’ হতে বর্ণিত, তিনি বলেন,
“এক ব্যক্তি বলল, হে আল্লাহর রাসূল! আমাদের কোন লোক তার অপর ভাই অথবা বন্ধুর সাথে সাক্ষাত করলে, সে কি তার সম্মানে মাথা নিচু করবে? রাসূল সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম’ বললেন, ‘না’। তারপর সে বলল, তাকে জড়িয়ে ধরবে কিনা এবং চুমু দিবে কিনা? রাসূল সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম’ বললেন, ‘না’। তারপর আবার জিজ্ঞাসা করা হল, তার হাত ধরে তার সাথে মুসাফাহা করবে কিনা? বললেন, ‘হ্যাঁ’।” বর্ণনায় তিরমিযী এবং তিনি বলেন, হাদিসটি হাসান সহীহ-বিশুদ্ধ।
পাঁচ- সাফওয়ান ইবনে ‘আস্‌সাল রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু’ হতে বর্ণিত, তিনি বলেন,
“একজন ইয়াহূদী তার সাথীকে বলল, তুমি আমাকে নিয়ে এই নবী (মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম) এর নিকট নিয়ে যাও। তারা উভয়ে রাসূল সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম’ এর নিকট আসেন এবং তাকে নয়টি নিদর্শন সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করেন। তারপর তারা দীর্ঘ হাদিসটি উল্লেখ করেন… তাতে বলা হয়, তারা উভয়ে তার হাত ও পায়ে চুমু দেন এবং তারা উভয়ে বলেন, আমরা সাক্ষ্য দিচ্ছি- নিশ্চয় আপনি আল্লাহর রাসূল। বর্ণনায় তিরমিযী ও অন্যান্যরা বিশুদ্ধ সনদে।
ছয়- আবদুল্লাহ ইবন ওমর রাদিয়াল্লাহু ‘আনহুমা’ হতে একটি কিসসা বর্ণিত, তাতে তিনি বলেন,
“অত:পর আমরা রাসূল সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম’ এর নিকটে গেলাম এবং তার হাতে চুমু দিলাম”। বর্ণনায় আবু-দাউদ ।
সাত- আয়েশা রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু’ হতে বর্ণিত, তিনি বলেন,
“যখন যায়েদ ইব্‌ন হারেসা মদিনায় আগমন করল, তখন রাসূল সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম’ আমার ঘরে ছিল। সে আমার বাড়ীতে রাসূল সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম’ এর নিকট এসে দরজায় আওয়াজ করল। রাসূল সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম’ তার দিকে উঠে দাঁড়ালেন, তারপর তার সাথে মু‘আনাকা-কোলাকুলি করলেন এবং তাকে চুমু দিলেন। বর্ণনায় তিরমিযী এবং তিনি বলেন, হাদিসটি হাসান।
আট-আবু যর রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু’ হতে বর্ণিত, তিনি বলেন,
“আমাকে রাসূল সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম’ বলেন, তোমরা কোন ভালো কাজকে তুচ্ছ মনে করবে না, যদিও তোমার কোন ভাইয়ের সাথে হাসি মুখে সাক্ষাত কর”। বর্ণনায় মুসলিম ।
নয়- আবু হুরাইরা রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু’ হতে বর্ণিত, তিনি বলেন,
“রাসূল সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম’ হাসান ইব্‌ন আলী রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু’ কে চুমু দেন। তখন আকরা ইব্‌ন হাবেছ রাদিয়াল্লাহু ‘আনহু’ বলেন, আমার দশটি সন্তান আছে, অথচ আমি কোনো দিন কাউকে আদর করে চুমু দিইনি। তার কথা শুনে রাসূল সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম’ বললেন, যে ব্যক্তি অন্যের প্রতি দয়া করে না, তার প্রতিও দয়া করা হবে না। [বুখারি ও মুসলিম

1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (No Ratings Yet)
Loading...

Leave a Reply


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.